অতিরিক্ত রাগ আপনার জীবনকে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করে

অতিরিক্ত রাগ আপনার জীবনকে যেভাবে নিয়ন্ত্রণ করে

অতিরিক্ত রাগ মানুষের শরীরে নানা সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। আবার রাগ প্রকাশ না করে মনের মধ্যে পুষে রাখলেও সৃষ্টি হতে পারে নানা সমস্যা। এমন স্বভাবের মানুষের জন্য সতর্কবার্তা দিয়েছে বোল্ডস্কাই।

তারা একটি গবেষণা পেয়েছে যে, রাগ প্রকাশ করলে মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য যেমন ভালো, তেমনই শরীরও ভালো থাকে। এটি ব্রেন স্ট্রোক প্রতিরোধেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অন্যদিকে অতিরিক্ত রাগ প্রকাশ করলে তা শরীরে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। দীর্ঘ সময় ধরে মানসিক চাপে থাকলে মস্তিস্কে প্রদাহ সৃষ্টি হয়। যে কারণে ব্রেন স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক এবং বুকে ব্যথার ঝুঁকি বাড়ে।

স্ট্রোক সেন্টার বলছে, প্রতি বছর আমেরিকায় প্রায় দেড় লাখ মানুষ স্ট্রোক করে মারা যান। যুক্তরাজ্যেও বেশিরভাগ মানুষ স্ট্রোকের কারণে মারা যায়। ভারতে বছরে প্রায় এক লাখ মানুষ স্ট্রোকের কারণে মারা যায়।

অতিরিক্ত রাগ মানুষের শরীরে যেসব সমস্যার সৃষ্টি করে:

 অতিরিক্ত রেগে গেলে শরীরে অ্যাড্রিনালিন হরমোনের মাত্রা বেড়ে যায়।

 উচ্চ রক্তচাপ, বুকে ব্যথা, তীব্র মাথাব্যথা, মাইগ্রেন, অ্যাসিডিটির মতো অনেক শারীরিক রোগ দেখা দিতে পারে।

 যারা একটুতেই রেগে যায় তাদের স্ট্রোক, কিডনির রোগ এবং স্থূলত্বের ঝুঁকি বাড়ে। আচমকা রাগের ফলে আমাদের মস্তিষ্কের ওপর প্রচন্ড চাপ পড়ে, ফলে মস্তিষ্কের রক্তনালিগুলো কিছুক্ষণের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। তখন স্ট্রোক হতে পারে।

অতিরিক্ত রাগের কারণে আলসার এবং বদহজমের মতো সমস্যাও হতে পারে।

 রাগ বেশি হলে হার্টের রক্ত পাম্প করার ক্ষমতা হ্রাস পায় এবং এর কারণে হৃৎপিণ্ডের পেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, ঘন ঘন রেগে গেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

 যে হাসিখুশি থাকে, তার মন এমনিতেই ভালো থাকে। অতিরিক্ত রাগের কারণে দেখা দিতে পারে ডিপ্রেশন বা বিষন্নতা। পাশাপাশি বাড়তে পারে স্ট্রেস।

 রাগ কিন্তু ত্বকের সমস্যার কারণও হতে পারে। ক্রমাগত রাগ করার ফলে র্যাশ, পিম্পল বা ব্রণর মতো ত্বকের নানান রোগ দেখা দিতে পারে।

Comments are closed.